দ্বিতীয় বছরে মহাসমারোহে নববর্ষ পালন করল রাজারহাট সিদ্ধা গ্যালাক্সিয়া আবাসনের বাসিন্দারা

পার্থ নিয়োগী: বিশ্বায়নের যুগে যখন আমরা সবাই ছুটে চলছি, তবুও কোথাও কোথাও কখনো যেন একটু থামতে হয়, একটু জিরিয়ে নিতে হয়, একটু পেছনে ফিরে তাকাতে হয়, করতে হয় একটু শেকড় সন্ধান । বাংলা বছর ১৪২৮ কে বিদায় জানিয়ে ১৪২৯ কে বরণ করে নিল সিদ্ধা গ্যালাক্সিয়া – ২ আবাসনের আপাত ব্যস্ত নাগরিকরা ।‌বাঙালি ঐতিহ্য, সংষ্কৃতি ও কৃষ্টিকে সঙ্গে করে সিদ্ধা গ্যালাক্সিয়া – ২ আবাসনের ছোট থেকে বড় এই বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেছেন স্বতস্ফূর্তভাবে । গান, নাচ, আবৃত্তি, খাওয়া দাওয়ায় আবাসন যেন এক মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল । এক ঝাঁক তরুণ আবাসিকদের উৎসাহেই মূলতঃ এই আয়োজন । যখন বাঙালী সংস্কৃতি হারিয়ে যাচ্ছে, বাঙালি হয় বাংলা ভুলে যাচ্ছে বা বাঙালিকে বাংলা ভুলিয়ে দেবার চেষ্টা চলছে – এই আবহে বাতাস সরগরম, সেই সময় দাঁড়িয়ে এই রকম অনুষ্ঠানের আয়োজন নিঃসন্দেহে সাধুবাদযোগ্য ! আবাসিকরা নিজেদের মতো করে সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিকল্পনা করেছেন এবং তা অত্যন্ত রুচিশীলতায় মঞ্চস্থ হয়েছে । আগামীতে বাংলার কৃষ্টি ও সংস্কৃতিকে লালন করে তাঁরা আরো এই রকম অনুষ্ঠান করবেন এমনটা বলা যেতেই পারে । উদ্যোক্তা ও অংশগ্রহণকারীরা সমবেতভাবে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এই অনুষ্ঠান সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করেছেন । এই কৃতিত্ব অবশ্যই আবাসনের সকলের প্রাপ্য ।

দ্বিতীয় বছরে মহাসমারোহে নববর্ষ পালন করল রাজারহাট সিদ্ধা গ্যালাক্সিয়া আবাসনের বাসিন্দারা